সরিষাবাড়ীতে মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় আসামী হলেন ইউ’পি মেম্বার

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ডোয়াইল ইউনিয়নের হাটবাড়ীর ২ং ওয়ার্ডের মৃত হানিফ উদ্দিনের ছেলে রুবেল মেম্বার একই গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে সুজন মিয়াকে মাদক সেবন ও ব্যবসা করতে বাঁধা দেয়ায় রুবেল মেম্বার’কে অতর্কিত আক্রমন করে শাহীন ও সুজনের লোকজন।

জানা-যায় রুবেল মেম্বার কে বেধড়ক পিটনির পর তার পকেটে থাকা নগদ পাঁচ (৫০০০) হাজার টাকা ও একটি মোবাইল সেট কেড়ে নেয় তারা। এমন খবর জানতে পেয়ে রুবেল মেম্বারের ছোট ভাই উজ্জল ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রতিবাদ করলে তাকেও লাঠি দিয়ে যথেচ্ছ পিটনির পর মাদক কারবারী সুজনের হাতে থাকা দা দিয়ে কোপ দিলে গুরুতর যখম হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে উজ্জল মিয়া। অতঃপর সরিষাবাড়ী হাসাপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চিকিৎসা প্রদান করেন। পূর্বেও এমন ঘটনা একের অধিকবার হওয়ায় এলাকার মানুষ জনের মধ্যে এক ধরনের চাপা আতংক বিরাজ করছে। এবার এমন মাইরপিটের ঘটনা রক্তাক্ত গুরুতর হওয়ায় গ্রামের বৈজেষ্ঠ্য মাতাব্বরগণ মানবিক চিন্তায় সকলে সমর্পিত হয় যে, এমন সংঘর্ষ যেন আর কখনো না ঘটে।

মুরুব্বিরা সবাই এমন সিদ্ধান্তে মনস্থির হলে সুজনের লোকজন তাদের কথা উপেক্ষা করে বিজ্ঞ জামালপুর আদালতে উজ্জল মিয়া ও রুবেল মেম্বারকে আসামী করে দোকানের পণ্য লুটপাট বা ডাকাতি হয়েছে মর্মে একটি মামলা করেন। যার মামলা মোকাদ্দমা নং ২২৮। মাতাব্বরগণ তাদের কর্তৃক সামাজিক বিচার কে এমন অবজ্ঞা করার জন্য মেম্বার রুবেলের লোকজনকে মুরুব্বিয়ানরা আইনি সাহায্য নেয়ার পরামর্শ দিলে, আহত রুবেল মেম্বার বাদী হয়ে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা করেন যার মামলা নং ১৫।

জানা-যায়, কিছুদিন পূর্বে সুজন মিয়ার বিরুদ্ধে মাদকের একটি মামলা থাকায় সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ তাকে ধৃত করে বিজ্ঞ জামালপুর আদালতে প্রেরন করেন। এলাকায় সুজনের বহুপন্থার অনিয়ম বা নানা প্রকার মাদক ব্যবসার কারণে দূর দূরান্ত থেকে মাদক ক্রয় করতে আসা বহিরাগতদের আগমনে চরম বিভ্রমে রয়েছে এলাকার স্কুল, কলেজ পড়ুয়া তরুনদের অবিভাবকগণ। এবিষয়ে ওই গ্রামের একজন প্রবীণ মাতাব্বর কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, পূর্বেও এমন অস্থিতিশীল পরিবেশ মাদক কারবার নিরসনে তাকে (সুজন) অবগত করলেও সুজন কোন প্রকার পাত্তা না দিয়ে তার এমন অপতৎপরতা সমেত মাদক ব্যবসা বন্ধ না করে অদ্যবধি চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে শাহীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওই দিন মাদকের উপর ভিত্তি করে কোনো মাইরপিটের ঘটনা ঘটেনি। রুবেল মেম্বারের কাছে দোকানের বাকি টাকা চাওয়ায় এমন ঘটনার সূত্রপাত হয়েছে বলে জানান তিনি।

এই বিষয়ে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর রকিবুল হাসান বলেন, উভয় পক্ষই মামলা করেছেন, আমরা অভিযুক্ত উভয়’কে ধরার চেষ্টা করছি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'