সরিষাবাড়ীতে প্রকৃত সংবাদকর্মীদের বিলুপ্তি করতে অপ-সাংবাদিকতা

মূলধারার গণমাধ্যমকে ফিরিয়ে আনতে অপ-সাংবাদিকতা নিরসনে অনুসন্ধিৎসু সাংবাদিক গবেষক মহলের গবেষণামূলক প্রতিবেদন

ছবিঃ প্রতীকী

স্বাধীন সার্বভৌম অর্জনের অগ্রনায়ক তথা এদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর হত্যার পেছনে একেবারে গোপন ইন্ধন দাতাদের মুখোশ উন্মোচন করার গবেষণায় লব্ধ থাকা গবেষক মহল’কে সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব কর্তৃক হেয়প্রতিপণ্য, মানহানি সহ এমন গবেষণামূলক লিখনিকে প্রতিরোধ্য করণের অন্তরায় বিলুপ্ত করার পায়তারায় আছেন বলে জানা-গেছে।

বস্তুবাদ মতাদর্শের বস্তুনিষ্ঠ মানবিক ধারার বিপরীত প্রক্ষেপণ ও ইশ্বরবাদ নীতিবিহীন, অনিশ্বরবাদ ধারায় অবৈধভাবে সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব পরিচালিত হচ্ছে। জানা যায় মানবিক কর্মকান্ডে অদ্যবধি সমর্পিত হতে পারেনি তারা। কোথাও তথ্য উপাত্ত সংগ্রহকালে শুধু মাত্র অর্থনৈতিক সংগতি হাসিলে ব্রত হয় সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব নামক এই সংগঠনটি। যে বিষয়ে সূক্ষ্ম অনুমানে উপনিত হয়েছেন গবেষক মহল। আরো জানা-যায়, সদ্য প্রতিষ্ঠিত হওয়া সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের বয়স এক (০১) বৎসর হলেও ১৯৮৫ সালে সেটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এ বিষয়টি নিয়েও বিভ্রমে রয়েছে প্রকৃত সংবাদকর্মীরা।

তাদের বংশ পরমপারায় চলে আসা বৈরী কৌশলে সংবাদকর্মীকে কুক্ষিগত করণ এবং অপ-সাংবাদিক তৈরি করতঃ তাদের (আবুল ও সোহান) অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে , যাদের পেশী শক্তি ও গুষ্টিগত শক্তি আছে তাদেরকে সংগঠনের সংখ্যাগরিষ্ঠ দেখানোর জন্য সদস্য করেন। অতঃপর সে সকল অপতৎপরতায় থাকা মানুষ গুলোর দুর্নীতি সহ অনেক অনিয়মকে আচ্ছাদিত করণের আশ্বাসে মোটা অংকের উৎকোচ নিয়ে তাদেরকে সংবাদকর্মী বানিয়ে দেন।

জানা-যায় সেই সকল সংবাদকর্মীদের দ্বারায় সরিষাবাড়ীর প্রকৃত লেখক ও সংবাদকর্মীদের অবজ্ঞা করণ সমেত বিভ্রমে ফেলছে বলেও তথ্য উপাত্ত্বে উঠে এসেছে। কোন উদীয়মান, প্রতিভাবান লেখক বা সংবাদকর্মী তাদের রূঢ়তার সাথে সমন্বয় না করলে তাদের (সরিষাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব) সংখ্যা গরিষ্ঠতায় থাকা সংবাদকর্মীদের অধিকাংশরাই নানা রকম রোষানলে ফেলে, সেই সকল সংবাদকর্মীদের অংকুরেই বিলুপ্ত করে আসছে বলেও জানা-গেছে।

৭১’রে স্বাধীনতা যুদ্ধে নিরস্ত্র বাঙালি জাতিকে মুক্তকরণের অভিপ্রায়ে থাকা একমাত্র আল্লাহ মুখাপেক্ষী এদেশের মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন ইত্তেহাদ পত্রিকার সাংবাদিক ছিলেন। এমন মানবতাবাদী এবং এই বিশ্বের উচ্চ আসনে অধিষ্ঠিত হওয়া শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব বঙ্গবন্ধু মানবিক সাংবাদিকতা করণের স্বদিচ্ছায় সমর্পিত হয়েছিলেন। অথচ সম্প্রতি যারা সাংবাদিকতা করছেন তারা কোন মানবিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করার স্বার্থে তৎপর রয়েছেন তা দেখভালের জন্য এদেশের তিনটি (৩) মিথ সমেত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী এদেশের সফল রাষ্ট্র নায়ক প্রধানমন্ত্রীর স্নেহাস্পদ তথা আস্থাভাজনে থাকা সরিষাবাড়ী সহ জামালপুর জেলার সকল নেতৃত্বস্থানীয়দের শুভ দৃষ্টির আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সরিষাবাড়ী অনুসন্ধিৎসু সাংবাদিক গবেষক মহল।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'