কিংবদন্তি সাংবাদিক ড. আবদুল হাই সিদ্দিক-এর জন্মদিন আজ

ক্যাপখোলা কলম হাতে তুখোড় সাংবাদিক; যিনি মেধায়-প্রজ্ঞায় পেয়েছেন অগণিত মানুষের টুপিখোলা সন্মান। বলছি, বাংলাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সাংবাদিক, পিআইবি’র সাবেক মহাপরিচালক, বাংলাভিশন টেলিভিশনের বার্তা প্রধান ড. আবদুল হাই সিদ্দিক-এর কথা। আজ এই আলোকবর্তিকাবাহী মহান মানুষটির জন্মদিন।

নরসিংদী জেলায় ১৯৬০ সালের আজকের এই দিনে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। কেউ তাঁকে বলেন খবরের কবি, কেউ বলেন প্রজ্জ্বলিত তারকা। তবে সর্বোপরি তিনি অপার অনুপ্রেরণার রাজসিক উদাহরণ। দরিয়ার মতো বিশাল হৃদয়ের এক মেধাবী সাংবাদিক।

ড. আবদুল হাই সিদ্দিক ১৯৮৩ সালে দৈনিক আজাদের বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার হিসেবে সাংবাদিকতা শুরু করেন। তারপর ১৯৮৬ সালে দৈনিক ইনকিলাবের স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে যোগদান করে একই পত্রিকায় পর্যায়ক্রমে সিনিয়র রিপোর্টার, বিশেষ সংবাদদাতা এবং চীফ রিপোর্টার পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।

সাংবাদিকতা জগতের এই অনন্য মানুষটি কাজ করেছেন নানাভাবে নানা সংবাদপত্রে। প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশের (পিআইবি)মতো গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের মহাপরিচালকের দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি দক্ষতার সাথে। বর্তমানে স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল বাংলাভিশনের বার্তা প্রধানের দায়িত্বে কর্মরত আছেন তিনি।

শিক্ষাজীবনে তিনি স্নাতক (সন্মান), স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি একজন সফল লেখক ও সম্পাদক। তার সম্পাদনায় বেরিয়েছে ‘প্রাকৃতিক বিজ্ঞান, আধুনিক তথ্যকোষ’সহ একাধিক তথ্যবহুল গ্রন্থ। লিখেছেন ‘সংবাদপত্রের বন্টন ব্যবস্থাপনা, সংবাদ পত্র বিপনন’ এর মতো গুরুত্বপূর্ণ কিছু বই। ছাত্রজীবনে কাব্যচর্চা করলেও পরবর্তীতে খবরের কাগজে বিপ্লবের শপথ রচনা করেছেন তিনি। পত্রিকার পাতায় পাতায় এঁকেছেন মাটি ও মানুষের ছবি।

বাংলাদেশের সাংবাদিকতা আকাশের উজ্জ্বল নক্ষত্রের আমরা দীর্ঘায়ু কামনা করি। শুভ জন্মদিন কিংবদন্তি সাংবাদিক ড. আবদুল হাই সিদ্দিক।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'