সরিষাবাড়ীতে বিজয় দিবস’কে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, গোলাগুলি; ভূলন্ঠিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ

৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ তথা মানচিত্র।

তাই বাংলাদেশে বিশেষ দিন হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে দেশের সর্বত্র পালন করা হয় এই দিবসটি।

১৯৭২ সালের ২২ জানুয়ারি প্রকাশিত এক প্রজ্ঞাপনে এই দিনটিকে বাংলাদেশে জাতীয় দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়।

জানা যায়, ৯ মাস যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পাকিস্তানী বাহিনীর প্রায় ৯১,৬৩৪ সদস্য বাংলাদেশ ও ভারতের সমন্বয়ে গঠিত যৌথবাহিনীর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করে। এর ফলে পৃথিবীর বুকে বাংলাদেশ নামে একটি নতুন স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটে।

কিন্তু গত ১৫ ডিসেম্বর রাতে জামালপুরের সরিষাবাড়ীর যমুনা সারকারখানার গেইট পারস্থ স্থানে এই বিজয় দিবসে আধিপত্যের বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থপতির (বঙ্গবন্ধু) আদর্শে নেই বরং আওয়ামীলীগের দাবিদারে থাকা কিছু অসংবেদনশীল বৈরী লোকজন এই মহান দিবসে গোলাগুলি, দোকানপাট ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ এবং লুটপাট সহ প্রায় অর্ধশতাধিক দুই পক্ষের লোকজন গুরুতর আহত সহ আহত হওয়ার কারণে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ভূলন্ঠিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকার সাধারণ জনগণ।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'