ছত্রদলের সক্রিয় কর্মী চরগিরিশ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ সভাপতি

ছবিঃ অভিযুক্ত মনিরুজ্জামান সিরাজী

সিরাজগঞ্জ জেলাধীন কাজিপুর উপজেলার বহুল ঐতিহ্যবাহী চরগিরিশ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হিসেবে এক সময়কার চিহ্নিত ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী মনিরুজ্জামান সিরাজী’কে অন্তর্ভুক্ত করে কুলষিত করা হয়েছে ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর আদর্শকে, কুলষিত করা হয়েছে প্রয়াত স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোঃ নাসিমের প্রিয় মাটিকে।

জানা যায়, ছাত্রলীগের কার্যক্রমকে গতিশীল করতে গত ২০১৭ সালে বহুল পরিচিত চরগিরিশ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হয়, অথচ কোনকিছুর তোয়াক্কা না করে কোন খোঁজ খবর না নিয়ে এলাকার কিছু অপতৎপর আওয়ামীলীগ কর্তৃক সুপারিশ করিয়ে মনিরুজ্জামান সিরাজী’কে এই প্যানেলে অধিষ্ঠিত করা হয়।

এই বিষয়ে এলাকার লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা গোষ্ঠীগত এবং তিনি নিজেও একজন কট্টরপন্থী বিএনপির সমর্থক ছিলেন। কিন্তু আওয়ামীলীগের সুসময়ে সুযোগ বুঝে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটিতে জায়গা করে নেয়।
তাছাড়াও এক সময়কার বিএনপির ঘাঁটি খ্যাত গুজাবাড়ীর গোষ্ঠীগত বিএনপির প্রভাব খাটিয়ে আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের নেতাকর্মীদের উপর অত্যাচার সহিংসতার সাথে জড়িত থাকার পরও তাকে এই প্যানেলে আওতাভুক্ত করণে প্রিয় মাটির ঐতিহ্যও নষ্ট হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত মনিরুজ্জামান সিরাজী ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাওয়ার পর থেকে এলাকার মুরিব্বিয়ান সমেত সমসাময়িকদের সাথে খারাপ আচারণের অভিযোগও পাওয়া গেছে।

এমন অভিযোগের বিষয়ে চরগিরিশ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হাসানুজ্জামান তরফদার অনিক’কে এই প্রতিবেদক মারফত বার বার অবগত করার পরও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হওয়ায় তিনি ধীরে ধীরে আরও বেপরোয়া হয়ে উঠছে বলে জানা যায়।

তাই এ বিষয়ে কাজিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মোঃ বেলায়েত উল শাওনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসলে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি করা হয় স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে, তাদের সুপারিশে অন্তর্ভুক্ত করা হয় মনিরুজ্জামান সিরাজী’কে, তবে তার বিষয়ে আনিত অভিযোগের সত্যতা পেলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

 

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'