নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ওয়াজেদ আলীর বিবৃতি

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে সভার মঞ্চে বক্তব্য প্রদান করতে না দেয়ায় গায়ে হাত তোলার বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বরাবর জয়নাল আবেদিন যে অভিযোগ করেছিলেন তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্যপ্রনোদিত বলে দাবি করলেন সাতপোয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াজেদ আলী।

জানা যায়, গত শুক্রবার জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের চর সরিষাবাড়ীতে আর সি সি গার্ডার ব্রীজ ও যমুনা শাখা নদীর উপর পি এস সি গার্ডার ব্রীজ নির্মান কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে তথ‍্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডাঃ মুরাদ হাসান এর প্রধান অতিথির আসটিতে উপবিষ্ট থাকা আলোচনা সভায় ও সমাবেশ শেষে এমন ঘটনা ঘটায় এই অভিযোগ করেন জয়নাল আবেদিন।

এ ব্যাপারে সাতপোয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়াজেদ আলী এই প্রতিবেদককে বলেন, বিষয়টি সম্পূর্ণ ভূয়া ও ভিত্তিহীন। আমি নই বরঞ্চ অভিযোগকারী জয়নাল আবেদীন আমাকে মারতে তেড়ে আসে। আমি এই বিষয়ে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবি করছি।

এই বিষয়ে সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম সোহেল রানা বলেন, ওয়াজেদ ভাই এবং জয়নাল কাকা অনেক ভালো মানুষ। আমার জানামতে তাদের মাঝে অনেক ভালো সম্পর্ক। মনে হয় জয়নাল কাকা কারও প্ররোচনায় প্ররোচিত। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। ঐদিন আমি ঐ ঘটনা স্থলে উপস্থিত ছিলাম, কি হয়েছে আমি দেখেছি। তার কোনই দোষ নেই।

এ বিষয়ে সাতপোয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি সেলিম রেজা বলেন, আমিও ঐদিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলাম, ওয়াজেদ ভাইয়ের সাথে জয়নাল আবেদীনের তেমন কিছুই তো হয়নি, সামন্য কথা কাটাকাটি নিয়ে সে এমন রাজনীতি করবে তা আমি ভাবতেই পারিনি।

এই সময় সাতপোয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট আব্দুল রউফ গফুর বলেন, আমি নিজেও ঐ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, এমন কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেনি, এমন মিথ্যাচারেএ নিয়ে আমি মনে করি সমগ্র সাতপোয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে।

এই ঘটনাকে উদ্দ্যেশ্যে প্রনোদিত ঘটনা বলে দাবি করলেন, ৩ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সদস্য আব্দুল আলীম, ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সদস্য উজ্জল, বদরুল মাস্টার সহ আরও অনেকে।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'