সরিষাবাড়ীতে সাংবাদিকদের সমন্বয়হীনতায় ভুলন্ঠিত হচ্ছে মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ

সরিষাবাড়ীতে সাংবাদিকদের সমন্বয়হীনতায় ভুলন্ঠিত হচ্ছে মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ

 

জাহাঙ্গীর আলম খোকনঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বহুদিন ধরে সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবের দখল দারিত্বের অভিপ্রায়ে থাকা সোলাইমান হোসেন হরেক (দৈনিক সমকাল সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি) তার অপতৎপর পদচারণায় সাংবাদিকদের সাথে সমন্বয়হীনতা তথা সাংঘর্ষিক মননশীলতায় রাজনৈতিক ও গোষ্ঠীগত পেশীশক্তির প্রভাব খাটিয়ে জোর পুর্বক নিয়ম বহির্ভূত ভাবে, অনেক প্রবীণ, নবীণ অঙ্কুরে প্রতিভাবান সংবাদকর্মীদের কুক্ষিগত করে সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবে তাদের (হরেক গং) মনগড়া আইন তৈরী করতঃ সদস‍্যের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে বহু সংবাদকর্মীদের মধ‍্যে গুটি কয়েক সংবাদকর্মীদের নিয়ে কর্তৃত্ববাদীর প্ররোচণায় সভাপতি সোলাইমান হোসেন বাবুকে জোর পূর্বক সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাব থেকে বের করে দিয়ে সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবের সভাপতির আসনটি আগ্রাসী ভুমিকায় দখল করেছে বলে জানা-যায়।

এমন হেতু স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে কলূষিত করছে বলে সূক্ষ্মানুমানে উপনিত হয়েছেন সরিষাবাড়ী ডিজিটাল প্রেসক্লাব। জানা-যায় তত্ত্বীয় মহাজ্ঞানী একাত্তরের (৭১) স্বাধীনতা অর্জনে মুক্তিযুদ্ধের মহান নায়ক বঙ্গবন্ধু পূর্ব পাকিস্থানের দৈনিক ইত্তেহাদ পত্রিকার প্রতিনিধি ছিলেন। গণমাধ‍্যমের অভ‍্যন্তরিন কোন কিছুর বিষয়ে তাঁর অজানা ছিলনা।

১৯৭২ সালে ১৬ই জুলাই সাংবাদিক ইউনিয়নের আলোচনা সভার প্রধান অথিতির বক্তব‍্যে গণমাধ‍্যম বিষয়ক অন্তর্নিহিত বিষয়াদির উপর গবেষণা মূলক আলোকপাত করেছিলেন তিনি। স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ে জেনারেল আইয়ুব খাঁন তার নিজের পত্রিকা দৈনিক পয়গাম, যে ব‍্যক্তি কর্তৃক পরিচালিত করতো, সেই ব‍্যক্তিই স্বাধীন বাংলায় রাতারাতি দৈনিক কাগজ পত্রিকা ছাপাখানার মালিক কি করে হলো, এবিষয়ে চরম ভাবে বোধগম‍্যহীনতায় ছিলেন তিনি। তিনি আরো বলেছিলেন, এই ছাপাখানার অর্থনৈতিক সংগতিতে কার সহযোগিতা ছিল ! অপশক্তি শুভশক্তির লড়াই সমানে, সমান হয়। তবে অপশক্তি শুভশক্তির কাছে হেরে য়ায় ধীর গতিতে।

বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও পশ্চিম পাকিস্থানের দোষর ও অনঈশ্বরবাদ অশুভশক্তির অন্তরাই প্রেতাত্বাদের আনুগত‍্যে থাকা এমন দেশ বিরুধীদের উপস্থিতি যে, এখনও রয়েগেছে তা তিনি (বঙ্গবন্ধ) অনুধাবন করতে পেরেছিলেন। অতঃপর স্বাধীন স্বার্বভৌমত্ব অর্জনের কোন প্রকার ব‍্যত‍্যয় যেন না ঘটে সেই জন‍্য, সমালোচককারী পত্রিকা গুলো বন্ধ করে দিয়ে মাত্র চারটি পত্রিকা এনায়েতুল্লার সুপারিশে চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। মহানমানবতাবাদী অর্পিত ও প্রত‍্যার্পিত এক (০১) ঈশ্বরবাদ মুখাপেক্ষী এদেশের মহান স্থপতি যে সকল পত্রিকা গুলো বন্ধ করেছিলেন, সে সকল পত্রিকার সংবাদকর্মীদের তাঁর (বঙ্গবন্ধু) কর্তৃক বেতন দেওয়া সমেত সরকারী চাকুরিও প্রদান করেছিলেন। আজ সেই ধারাবাহিকতা তথা রাষ্ট্রীয় সরকারের নির্দেশনা অমান‍্য করে অদ‍্যবধি বেঙের ছাতার মত পত্রিকা ছাপাখানার সত‍্যাধিকারী সম্পাদকগণ সোলাইমান হোসেন হরেকের মতো লোকদের সম্পর্কে দেখভাল না করে একজন সামাজিক বিবর্জীত ব‍্যক্তী দুকলম লিখতে পারলেই পত্রিকার সংবাদকর্মী বনে যান বলেও তথ‍্য উপাত্তে উঠে এসেছে।

এ বিষয়ে সরিষাবাড়ী ডিজিটাল প্রেসক্লাবের কার্যকরি সদস‍্য আহসানুল কবির (গবেষক রনজু) তাঁর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গণমাধ‍্যমের সঠিক বার্তা একটি দেশকে যেমন ধংসের হাত থেকে বাচাতে পারে অতঃপর ভুল বার্তায় একটি দেশ সমেত সে দেশের সম্পূর্ণ জাতি বিলুপ্ত হতে পারে। তিনি আরো বলেন, মূলত এক (০১) ঈশ্বরকে চেনা ও মানব জাতির কল‍্যাণের বার্তা সরকার এবং জনগণের নিকট প্রেরণ তথা বহিরাগত অপশক্তির প্রভাবের প্রক্ষেপণ স্বার্বভৌত্বে বিভ্রম করণের অদৃশ‍্য বার্তা সম্পর্কে জানা হচ্ছে সাংবাদিকতা। ততকালীন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধাচারণে থাকা স্বাধীনতার চেতনাকে কলূষযুক্ত করার প্ররোচক সম্পাদকগণ সমেত বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সাংবাদিক সংগঠনের প্রধান এনায়েতুল্লাহ কর্তৃক এদেশের স্থপতিকে বিভ্রম করণ তথা একই সংকায় সেই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি সরিষাবাড়ী প্রেসক্লাবের অবৈধ সভাপতি সোলাইমান হোসেন হরেক, স্বাধীনতার বিরোধীতায় থাকা রাজনৈতিক দলের ক‍্যাডার আওয়ামীলীগের নাম ভাঙিয়ে তার বৈরী কর্মকাণ্ড সমেত বিনয়ী, ভদ্র ও নিরীহ সাংবাদিকদের উপর হুমকি ও স্থপতির আদর্শে গবেষণামূলক লিখনিকে প্রতিরোধ‍্য করণের অন্তরায়, স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ভূলন্ঠিত করছে বলে অভিমত ব‍্যক্ত করেছেন, অনুসন্ধিৎসু সাংবাদিক গবেষক মহল।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'