সরিষাবাড়ীতে গ্রাহকদের টাকা নিয়ে সমবায় সমিতি উধাও, দিশেহারা গ্রাহকগণ

টাকা চাইতে গেলে প্রভাবশালীদের কর্তৃক মারপিট সহ প্রাননাশের হুমকিতে পড়তে হচ্ছে সাধারণ গ্রাহকদের

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে আরামনগর বাজারস্ত উদার , ঊষা ও বৈশাখী নামক সমবায় সমিতিগুলো গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রায় দুই (০২) কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তায় রয়েছেন বলে জানা-গেছে। বহুপন্থার অনিয়মে থাকা উদার সমবায় সমিতির কর্তৃপক্ষ এলাকার রাজনৈতিক লোকদের প্রভাব খাটিয়ে টাকা ফেরত দিবেনা এমন দাম্ভিকতা পোষন করলে হতাশাগ্রস্থ গ্রাহকরা ধূম্রজালে পতিত হওয়ার অতঃপর দিশেহারা ও চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে।

আরামনগর বাজারে ঢুকতেই অভিযোগের অন্তছিলনা উষা, উদার এবং বৈশাখী নামক সমবায় সমিতির বিরুদ্ধে। সমবায় সমিতি গুলোর সদস‍্য ছিল সাধারণ সমেত, গরীব খেটে খাওয়া মানুষগুলো। অনেকেই বাজারের বড় ব‍্যবসায়ী। গ্রাহকগণ এই প্রতিবেদককে বলেন, বছর শেষে লভ্যাংশ সহ মূল টাকা ফেরত দেয়া হতো, এরই ধারাবাহিকতায় প্রতিদিন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের নিকট হতে দশ টাকা থেকে শুরু করে বড় মহাজনদের নিকট থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত সঞ্চয় সংগ্রহ করতো তারা। পূর্বে ঠিকঠাক টাকা পরিশোধ করে আসলেও, এবছরে টাকা ফেরত দেয়ার সময়সীমা চার-পাঁচ মাস পার হলেও কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অর্থ ফেরত দেয়ার তেমন আগ্রহ দেখতে না পেয়ে সাধারণ গ্রাহকগণের মধ‍্যে এক ধরণের মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে গ্রাহকরা কর্তৃপক্ষের সাথে দেখা করার জন‍্য আসতে থাকলে, তাদেরকে আর খোঁজে পাওয়া যায়নি বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

এমতাবস্থায় সমবায় সমিতির কর্তৃপক্ষদের প্রায় তিন-চার মাস খোঁজ না পেয়ে গ্রাহকগন এলাকার রাজনৈতিক নেতৃত্বস্থানীয় তথা সামাজিক সুরাহাকারী মুরুব্বিয়ানদের স্বরনাপণ‍্য হলে, এমন জনদুর্ভোগ সমেত হজবরল অবস্থার কোন সমাধান দিতে পারেনি তাঁরা। সমবায় সমিতির অধিকাংশ গ্রাহকদের অভিযোগ, টাকা চাইতে গেলে প্রভাবশালীদের কর্তৃক মারপিট সহ প্রাননাশের হুমকিতেও পড়তে হচ্ছে তাঁদের।

উদার সমবায় সমিতির কর্তৃপক্ষ সাধারণ মানুষের টাকা ফেরত দিচ্ছেনা এ ব্যাপারে অফিসে গিয়ে খোঁজ নিলে, কর্তৃপক্ষকে না পাওয়া গেলেও পাওয়া যায় অফিসের অর্থ উত্তলকারী মোঃ সোহেল রানাকে। এঘটনার সত‍্যতা কতটুকু তাহার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এঘটনা কোন মিথ‍্যাচার নয়, ঘটনা সম্পূর্ণ সত‍্য, কর্তৃপক্ষ অনেকদিন হলো অফিস করছে না, গ্রাহকদের টাকা ফেরত দিবে কিনা এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরও বলেন, উদার সমবায় সমিতিতে উদার নামক দুইটি গণপরিবহন আছে, সেই গাড়ী দুটো বিক্রির অতঃপর গ্রাহকদের টাকা গুলো পরিশোধ করবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মোহাম্মদ হালিম তাঁর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঊষা এবং বৈশাখী সমবায় সমিতির বিষয়টি এখন পর্যন্ত আমার বোধগম্যে নেই, তবে উদার সম্পর্কে যে সকল আনিত অভিযোগ আছে তার সত‍্যতা পেলে আইনি ব‍্যবস্থা নিবেন বলে জানান তিনি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'