সরিষাবাড়ীতে র‍্যাব-১৪ এর অভিযানে ভূয়া ডাক্তার সমেত আটক করা হয়েছে তার সহযোগীকে

এই সময় ঐ ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে কিছু ভারতীয় অনুমোদনহীন ঔষধ জব্দ করা হয়

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পাঁচ (৫) নং পিংনা ইউনিয়নে ক্যাপ্টেন জালাল উদ্দিন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভূয়া ডাক্তার সনাক্ত করণে জামালপুরের র‍্যাব চৌদ্দ (১৪) কর্তৃক অভিযান চালিয়েছে বলে জানা-গেছে।

গত বুধবার ১২টার সময় এ অভিযান চলে। এ অভিযান পরিচালনা করেন জামালপুর র‌্যাব চৌদ্দ (১৪) সিপিসি ১ এর সহকারি পুলিশ সুপার এম এম সবুজ রানা ও সহকারী কমান্ডার এ ডি মোঃ আনোয়ার হোসেন। অভিযান পরিচালনাকারী দল কর্তৃক জানা-যায় মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন ও বৈশ্বিক সহ দেশের সকল ডিগ্রী সমেত সেনাবাহিনীর অবসর প্রাপ্ত পরিচয়ে এলাকার সকল প্রকার রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছিল। অবসর প্রাপ্ত ক্যাপ্টেন ও আর্মি মেডিকেল কোরের এমবিবিএস এমবিডিসি রেজি নং N৪৩১৬ ডাক্তার জালাল উদ্দিনের সনদটি ভূয়া প্রমানিত হয়। অতঃপর ডাক্তার জালাল উদ্দিন সহ তার সহযোগী রাসেল কে র‍্যাব আটক করে নিয়ে যায়। জানা-গেছে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি উপজেলার কুসুমদিয়া গ্রামের মৃত- হাসান আলী’র ছেলে চিকিৎসক জালাল উদ্দিন।

এসময় সরিষাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিহাব উদ্দিন আহমদ বলেন, যেহেতূ ডাক্তার জালাল উদ্দিন তার কাগজপত্র সকলি ভূয়া, সেমতে আইনি প্রক্রিয়া করণের মধ‍্যেদিয়ে ব‍্যবস্থা করাটাই শ্রেয় বলে আমি মনে করছি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'