মেয়র রুকনের দুঃসাহসিকতা দেখে স্তম্ভিত সরিষাবাড়ীর সর্বস্তরের জনগণ

জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার বহুরূপী মেয়র মোঃ রোকনুজ্জামান (রুকন) একজন প্রকৃত রাজাকারের নাতি বলে আবারও প্রমাণিত হয়েছে সরিষাবাড়ী জনগণের কাছে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (৪আগস্ট) আনুমানিক  বিকাল ৪.৪৩ মিনিটের সময় তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে আপত্তিকর, অপমানজনক ,হিংসাত্মকমূলক লেখা  পোস্ট করেন । যেখানে তিনি গত সোমবার (৩ আগস্ট) রাত ৯ দিকে তার একমাত্র ছেলে রুহী ফাইয়াজ (স্বপ্নীল) এর উপর হামলা করেছে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ হাসান এমপি’র নির্দেশনায় তার প্রতিনিধি মুকুলের গুন্ডাবাহিনী। কিন্তু মেয়র রুকনের এমন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কথিত অসত্য মিথ্যাচারের সত্যতা, আজও তথ্যানুসন্ধানে পাওয়া যায়নি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, তার মাদকসেবী স্বপ্নীল দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হয়েছে। কিন্তু তিনি এই সত্য ঘটনা জ্ঞাত হয়েও রাজনৈতিক প্রতিহিংসায়, নিজের কুকর্মকে আড়াল করার লক্ষ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে অপতৎপরতা চালান ঢাকায় বসে। যা ইতিপূর্বে তিনি আরও অনেক বার করেছেন বলে জানা গেছে। মেয়র রুকোনুজ্জামান সরিষাবাড়ী পৌরসভার সকল কাউন্সিলরদের অনাস্থাকৃত ও অবাঞ্চিত মেয়র। তার নামে নারী কেলেঙ্কারি সহ ঘুষ, দূর্নীতি, অনিয়ম, টেন্ডারবাজি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ রয়েছে। এমতাবস্থায় মেয়র রুকোনুজ্জামান রুকন দিশেহারা হয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে অনেক সুনাম ধন্য নেতৃবৃন্দের সাথে উদ্ধত আচরণসহ অশালীন বাকদ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন বলেও জানা যায়। মেয়র রুকন আওয়ামী লীগের মত একটি ঐতিহ্যবাহী দলে অনুপ্রবেশ করে দলের মান ক্ষুন্ন করেছেন বলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। আজ তার ভুলের কোনো কূলকিনারা খুঁজে না পেয়ে অবশেষে মেয়র রুকন সন্দেহবশত উল্টো দোষারোপ করছেন এবং কুরুচিপূর্ণ মিথ্যাচার রটাচ্ছেন মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে গড়া প্রকৃত সৈনিক এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশুদ্ধ রক্তের সৃষ্টি, মাননীয় তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ মুরাদ হাসান এমপির বিরুদ্ধে। জানা গেছে মেয়র রুকন গত মঙ্গলবার(৪ আগস্ট) রাত ৮.২৭ মিনিটের সময় তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে এসে তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ মুরাদ হাসান এমপি’কে উদ্দেশ্য করে তার দুর্নীতি ও চরিত্র নিয়ে কুরুচিপূর্ণ, অসন্মানজনক, মানহানিকর বক্তব্য পেশ করেন । যার পরিপ্রেক্ষিতে গত বুধবার (৫ আগস্ট) সকাল ১১ টার দিকে মেয়র রুকনের বিরুদ্ধে সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সদস্য সামিউল হক বাদী হয়ে আইসিটি আইনে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মেয়র রুকনের এই কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ এক জরুরী মিটিংয়ের আয়োজন করেন এবং দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দের সাথে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) উপজেলার সকল ইউনিয়ন ও পৌরসভায় একযোগে মানববন্ধন পালন করেন। পরিশেষে সাংবাদিক সম্মেলনের মধ্য দিয়ে এই দুর্নীতিবাজ কুলাংকার ও বাটপার চোর মেয়রের বরখাস্ত সহ আইনানুগ শাস্তির দাবি জানান উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ লতিফ, মোস্তাফিজুর রহমান শাহজাদা ও মনির উদ্দিন এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হারুনুর অর রশিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল গনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আনিসুর রহমান এলিন, খোরশেদ আলম ভিপি,পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি উপাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, আওয়ামী নেতা ও বিআরডিবি’র চেয়ারম্যান কামাল পাঠান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোফাজ্জল হোসেন, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ আলী, কাউন্সিলর শ্রী কালা চাঁন পাল সহ পোগলদিঘা ইউপি চেয়ারম্যান শামস্ উদ্দিন ও দলীয় অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রমুখ।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'