সরিষাবাড়ীতে প্রধান সড়কে অবৈধভাবে গতিরোধক নির্মাণ, দুর্ঘটনার শিকার পথচারী

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে প্রধান সড়কের উপর অবৈধভাবে স্প্রীডব্রেকার (গতিরোধক) বাঁধ নির্মাণ করায় প্রতিদিনই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে বিভিন্ন প্রকার যানবাহনসহ পথচারীরা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ সূত্রে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভাস্থ এলাকা আরামনগর বাজার ট্রাক সমিতি মোড় সংলগ্ন কে এস বি ফাইবার্স লিঃ নামক কোম্পানিটি সাম্প্রতিক বন্যার পানি নিষ্কাশনের জন্য প্রশাসনিক অনুমতি ছাড়াই সরিষাবাড়ী তারাকান্দি ভুয়াপুরগামী এই ব্যস্ততম প্রধান সড়কে উপর স্পীডব্রেকার (গতিরোধক)বাঁধ নির্মাণ করে। যার ফলে জনসাধারণ ও যানবাহন চলাফেরায় সৃষ্টি হচ্ছে চরম দুর্ভোগ ও প্রতিবন্ধকতা। জানা গেছে ঈদুল আযহা ঈদের দিবাগত রাতে আনুমানিক রাত সাড়ে ১২ দিকে পোগলদিঘা ইউনিয়নের রুদ্রবয়ড়া গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন বকুলের ছেলে শিবলু মোটরসাইকেলে আসতে ছিলেন শিমলা বাজারের দিকে এমন সময় উক্ত স্পীডব্রেকারটি তার অজানা থাকায় সেখানে তিনি এক্সিডেন্টে করেন। আহত বকুল মিয়া জানান আশপাশে কোন চিহ্ন বা বাতি না থাকায় অন্ধকারে গাড়িটি এক্সিডেন্ট হয় এবং এরকম একটি ব্যস্ততম একটি সড়কে স্বার্থন্বেষী চিন্তায় স্পীডব্রেকার (গতিরোধক) বাঁধ নির্মাণ করা সম্পূর্ণ অন্যায় ও অপরাধের শামিল। তাই অবিলম্বে যদি এই স্পীডব্রেকারটি ভেঙ্গে বা অপসারণ না করা হয়। তাহলে এটি মৃত্যুর ফাঁদ হয়ে দাঁড়াবে জনসাধারণের জীবনে । এদিকে অত্র এলাকার প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন গত কয়েকদিনে এই স্পীডব্রেকারটি হেতুতে কমপক্ষে ১০টি দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। এতে করে আহত হয়েছে কমপক্ষে ২০ জন এবং মোটরসাইকেল, অটোরিকশাও অটোভ্যানসহ মারাত্মক হারে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান।

উক্ত বিষয়টি নিয়ে কে এস বি ফাইবার্স লিঃ কোম্পানির দায়িত্বরত কর্মকর্তা আতিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তাকে মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'