আমগো সব শেষ, কৃষি কর্মকর্তা এখনও খোঁজ নেয়নিঃ নিশ্চিন্তপুর ইউনিয়নের কৃষকগণ

এবারের দীর্ঘমেয়াদী বন্যায় সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর ইউনিয়নের বাশজান চরে প্রায় ১০০ বিঘা জমির কলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এখনও খোঁজ নেয়নি কৃষি কর্মকর্তা।

সরেজমিনে ঘুরে দেখতে এবং জানতে পেয়েছি, ২০১৪ সাল হতে দূর্গম বাশজান নামক এই চরাঞ্চলে প্রায় চারজন কৃষক নিজেদের ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় প্রায় ১০০ বিঘা জমিতে কলার চাষ করে আসছিলো। হঠাৎ এবারের দীর্ঘমেয়াদি বন্যায় পানিতে নিমজ্জিত হয়ে বাগানের প্রায় কলার গাছই পচন ধরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। যার বর্তমান বাজার মূল্য ৩৪ লক্ষাধিক টাকা।

এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক লুৎফর রহমান আদল এই প্রতিবেদক’কে জানান, ‘আমি প্রায় ১০ থেকে ১২ বছর আগে নিজের বাড়ির আঙিনায় কলার আবাদ শুরু করি। তারপর আমরা দুই তিনজন মিলে অন্যের জমি লিজ নিয়ে প্রায় ৫০-৬০ বিঘা জমিতে কলার আবাদ করে ভালোভাবেই চলছিলো আমাদের সংসার, কিন্তু এবারের বন্যায় কলার বাগান নষ্ট হয়ে প্রায় ১৭-১৮ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়ে পথে বসে গেছি, এখনও কোন কৃষি কর্মকর্তারা দেখতেও আসেনি, এমনকি খোঁজখবরও নেয়নি, তাই আমার মেয়ে ছেলে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছি’।

ভুক্তভোগী কৃষক লিটন মিয়া বলেন,’ আমার এক ছেলে এবং দুই মেয়ে, এই কলা বিক্রি করেই আমার সংসার চলে। তবে এবার বন্যায় সবকিছু শেষ, আমরা পথের ফকির’।

এ বিষয়ে পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটি থাকায় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার বক্তব্য নেয়া যায়নি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'