সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে ধীর গতিতে কমছে যমুনার পানি, বাড়ছে ভোগান্তি

সিরাজগঞ্জ পয়েন্টে ধীর গতিতে কমছে যমুনা নদীর পানি। যমুনার পানি কমতে থাকলেও টানা বৃষ্টিতে অভ্যন্তরীণ নদ-নদীর পানি বাড়ায় প্রতিদিনই বাড়ছে পানিবন্দি পরিবারের সংখ্যা।

জেলার ছয়টি উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়নের প্রায় তিন লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে দিন পার করছেন। নিজেদের জন্য বিশুদ্ধ পানি আর খাবারের সংকট তো রয়েছেই, সেই সঙ্গে দেখা দিয়েছে গো খাদ্যেরও সংকট।

এদিকে, তাঁত প্রধান এলাকা এনায়েতপুর, বেলকুচি ও শাহজাদপুরের প্রায় অর্ধলক্ষাধিক তাঁত পানিতে ডুবে গেছে। এনায়েতপুর থেকে শাহজাদপুর যাওয়ার রাস্তায় পানি ওঠায় বিপাকে পড়েছে তাঁত ব্যবসায়ীরা।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. আব্দুর রহিম বলেন, জেলায় ৫৮ হাজারেরও বেশি পরিবারের তিন লাখ ৪০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। বন্যার পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে সাড়ে ৫৩ কিলোমিটার রাস্তা ও বাঁধ এবং ৩৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চারটি ইউনিয়ন পরিষদ ভবন এবং তিনটি কমিউনিটি ক্লিনিক। তলিয়ে গেছে ১৪ হাজার ১৩ হেক্টর জমির ফসল।

এরই মধ্যে বন্যার্তদের জন্য ২৬৭ মেট্রিক টন চাল, ৩৯৫০ প্যাকেট শুকনো খাবার ছাড়াও শিশুখাদ্য ও গবাদিপশুর খাদ্যের জন্য দুই লাখ টাকা করে মোট চার লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'