সরিষাবাড়ীতে পরকীয়া প্রেম করতে গিয়ে গণধোলাইয়ের শিকার ইউপি মেম্বার,থানায় মামলা

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পরকীয়া প্রেম করতে গিয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় জনতার হাতে ধরা খেলেন এক ইউপি সদস্য।

জানা যায় সরিষাবাড়ী উপজেলা পোগলদিঘা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে বগারপাড়া গ্রামের ছাদেক আলী গুদুর ছেলে আফজাল হোসেনের স্ত্রী চামেলী বেগমের সাথে এই ঘটনা ঘটে।

গ্রামবাসী ও পুুুুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ১২ জুন শুক্রবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টার দিকে উক্ত ৩নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত মেম্বার তোজাম্মেল হক বকুল (৪৫) বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের পঁঁচিশ টাকার প্রণোদনা ভুল তথ্য সংশোধনী করে দেওয়ার নামে আফজাল হোসেনের অনুপুস্থিতিতে তার বাড়ীতে যান এবং তার স্ত্রী চামেলী বেগমর সাথে পরকীয় প্রেমে কাম লালসায় অপকর্মে লিপ্ত হন । এ সময় এলাকার কয়েকজন যুবক অতিরিক্ত গরম থাকায় বাড়ির পাশে ইউকেলেক্টর গাছের বাগানে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। হঠাৎ তারা ভিন্ন অন্যরকম আওয়াজ শুনতে পেয়ে টিনের বেড়ার ফাঁকা দিয়ে দেখতে পান, তাদের এলাকার মেম্বার তোজাম্মেল হক বকুুল বিবস্ত্র অবস্থায় চামেলী বেগমের সাথে অসামাজিক কাজে লিপ্ত হয়েছেন। এমন পরিস্থিতি দেখে তখন তারা প্রমাণস্বরূপ তাদের অপকর্মের ভিডিও মোবাইলে ধারণ করে রাখেন এবং যুগলকে হাতেনাতে ধরে ফেলে বলে জানান। উক্ত ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ইউসুফ, সুমন, শাকিব, রিপন, কামাল ও শাহিন জানান মেম্বার তোজাম্মেল প্রায়ই এই বাড়িতে আসা যাওয়া করতো এবং এই নিয়ে গ্রামের মধ্যে কানাঘুষা হলেও কেউ তোজাম্মেলের দাপটে কথা বলতে সাহস পেত না। এদিকে চামেলি বেগম সম্পর্কে জানা যায়, তিনি ইতিপূর্বেও স্বামী সন্তান রেখে তার আপন চাচাতো দেবরের সাথে অর্থাৎ বর্তমান স্বামী আফজালের পরকীয়া প্রেমে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেন এবং এই নিয়ে গ্রামের মধ্যে অনেক সালিশ দরবার হয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী। চামেলি বেগম বর্তমানে আফজাল হোসেনের সংসারেও এক কন্যা সন্তানের জননী বলে জানান তার নিকটাত্মীয়রা এবং মেয়ে বিয়ে দেওয়ার সুবাদে আফজাল হোসেন বিয়াই বাড়ি বেড়াতে গেলে চামেলী বেগম তার পরকীয়া প্রেমিক মেম্বার তোজাম্মেল হক বকুলের সাথে এই অনৈতিক কাজে লিপ্ত হন। এদিকে উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে এলাকার মধ্যে এক চাঞ্চল্যকর পরিবেশ সৃষ্টি হয় এবং সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ বিষয়টি অবগত হলে তারা তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে এসে ঘটনার সত্যতা পান এবং যুগলকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন পোগলদিঘা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সামস উদ্দিন এবং এলাকার নেতৃত্ব স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বলে জানা যায়।

উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ আবু মোঃ ফজলুল করীম বলেন, উক্ত ঘটনায় ইউপি মেম্বার তোজাম্মেল হক বকুল ও চামেলি বেগমের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্যতা পাওয়ায় মামলাকারে জামালপুর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'