মেহেরপুরের গাড়াডোবে তরমুজের ব্যাপক ফলন, তবে বিক্রি করতে না পারায় লোকসানের আশংকা কৃষকের

মেহেরপুর জেলার গাংনী সদরের গাড়াডোব গ্রামের বজলুর রহমানের(৪৩) জমিতে তরমুজের ব্যাপক ফলন হওয়ার পরও বিক্রয় করতে পারছেন না।
জমির মালিক বজলুর রহমান (৪৩) ভাষ্যমতে গত জানুয়ারি মাসে তরমুজের ব্লাক বেবি উন্নত জাতের বীজ বপন করে দেড় বিঘা জমিতে তরমুজ চাষ করেন এবং অনেক পরিচর্যা করেন। তরমুজ চাষকৃত জমিটি গাড়াডোব গ্রামের কুঠিপাড়া মৌজার অভ্যান্তরে অবস্থিত। তিনি আরও জানায় তার জমিতে প্রায় ৩০ মণ তরমুজ আছেন। তরমুজ চাষ করতে গিয়ে ষাট হাজার টাকা খরচ হয়।

করোনা মহামারি লকডাউনের কারণে দুরবর্তী শহর থেকে বেপারী না আসতে পারায় তরমুজ বিক্রয় করতে পারছেন না, ফলে জমিতে তরমুজ পেকে গিয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো জানিয়েছেন দেশে যানবাহন চলাচল না করায় আমরা স্থানীয় বাজারে তরমুজ সরবরাহ করতে পারছি না ফলে আমরা ব্যাপক ক্ষতির মুখামুখি হচ্ছি।আমরা স্থানীয় বাজারে নায্য দাম পাচ্ছি না।
স্থানীয় তরমুজ চাষীরা জানিয়েছেন এ বছরে তরমুজে চাষে ক্ষতি হলে আমরা ভবিষ্যতে তরমুজ বীজ রোপন করতে হিমসিম খেয়ে যাবো এবং আমাদের এলাকার চাষীদের তরমুজ চাষ করতে অসম্ভব হয়ে যাবে।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'