সরিষাবাড়ীতে পৌর মেয়র রুকনের বৈরী দৌরাত্ম্যের কারণে আওয়ামীলীগে বিভ্রম

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পৌর মেয়র রুকনুজ্জামান রুকনের স্বার্থান্বেষী মননশীলতা তথা বৈরী দৌরাত্ম্যের কারণে, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরিষাবাড়ী উপজেলা শাখার সকল, অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃত্বস্থানীয়রা চরমভাবে বিভ্রম হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সচেতন মহল। জানা যায়, মেয়র রুকন গত ২০১৫ সালে ডিসেম্বরের ৩০ তারিখে, বি,এন, পি’র ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পৌরসভার মেয়র পদে নির্বাচন করার আশাবাদ ব‍্যক্ত করলে, হঠাৎ মেয়র রুকন রাজনীতিতে আসায় তৃণমূলে কোন প্রকার রাজনৈতিক ভীত না থাকায় ও তার অতিরিক্ত অহংকারের জন‍্য জামালপুর জেলা বি,এন, পি’র সভাপতি তার (মেয়র রুকন) মনোনয়নের বিষয়ে জনসম্মুখে অস্বীকৃতি জানালে মেয়র রুকন তার আক্রমনাত্বক আক্রোশে প্রজ্জ্বলিত হয়ে উঠেন এবং তার অর্থনৈতিক দাম্ভিকতায়, আওয়ামীলীগ দাবিদারে থাকা কিছু, অপরাজনৈতিক নেতৃত্বস্থানীয়র সুপারিশ তথা প্ররোচণায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন। অপরাজনৈতিক ব‍্যক্তিত্বের সাথে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ক্রান্তিকাল থাকায়, স্বাধীনতার স্থপতির বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া প্রকৃত সৈনিকরা নৌকার প্রতীককে নির্বাচিত করার লক্ষ‍্যে, ব‍্যক্তিকে নয় নৌকার প্রতীক আওয়ামীলীগকে নির্বাচিত করার আশাবাদে সরিষাবাড়ী সমেত জামালপুর জেলা আওয়ামীলীগের তৎপরতায় মেয়র রুকন পৌর নির্বাচনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়। স্বপথ গ্রহন করার পর, পৌরসভার গণপ্রশাসনের আসনে অধিষ্ঠিত হয় মেয়র রুকন। পৌরসভার মেয়র হওয়ার পর থেকে তিনি, দরিদ্র,হত-দরিদ্র ও দারিদ্য সীমার নিচে বসবাসরত মানুষকে দৃষ্টি গুচরে না রেখে এবং মন্দির, মসজিদের উন্নয়ন সংস্কার না করে কপোত কপোতির সমন্বয়ক স্থান পার্ক নির্মাণ সমেথ সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মাধ‍্যমে মেয়র সেরা কন্ঠ প্রতিযোগিতার মধ‍্যদিয়ে শুড়শি ও ললনা সনাক্তের বৈরী কৌশলে মেতে উঠেন বলে জানা যায়। মেয়র রুকনের চারিত্রিক বৈশিষ্ঠ্য ও কামরিপুর উদ্ববেলিত মনমানুষিকতা নারী কেলেংকারীতে সর্বসর্বা নাটকিয়তার রচনা সমেত সুষম উন্নয়নের ব্যত্যয় তথা দূর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব‍্যবহার, নিয়োগ বাণিজ‍্য করার হেতু ও তার আগ্রাসী ভূমিকাকে প্রতিরোধ করার জন‍্য পৌর সভার সাকুল‍্য কাউন্সিলরগণ সরিষাবাড়ী গণময়দানে সাংবাদিক সম্মেলন অতঃপর মানববন্ধনে সাংবাদিকদের সম্মূখে মেয়র রুকনের নানা অনিয়মের আলোচনা করার পর তার (মেয়র রুকনে) অনাস্থা দাবি করেন। এ খবর জানতে পেরে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরিষাবাড়ী উপজেলা শাখার নেতৃত্বস্থানীয়দের সমন্বিত মতধারায় পৌর আওয়ামীগের সহ-সভাপতির পদ থেকে মেয়র রুকনকে তৎক্ষণাৎ খারিজ করেন বলে জানা যায়। বহু অনিয়মে থাকা মেয়র রুকন আওয়ামীলীগের অনেক প্রবীণ ব‍্যক্তীত্বের সাথে রুঢ় আচরন ও ক‍্যাডার ভিত্তিক আলোচনায় থাকা মেয়র রুকন আওয়ামীলীগে অনভিপ্রেত প্রবেশ তথা স্বার্থান্বেষী মৌনতায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃত্বস্থানীদের মধ‍্যে বিভ্রম সমেত ফাঁটল ধরানোর অপচেষ্টা চালালে, তা স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুর অত‍্যন্ত আস্থাভাজন প্রয়াত এডঃ মতিয়র রহমান তালুকদার মুক্তিযুদ্ধের অন‍্যতম সংগঠক এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের কান্ডারি তাঁর কর্তৃক অগোছালো সরিষাবাড়ী আওয়ামীগকে পূণরায় সকল নেতাকর্মীদের সহযোগিতায় সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের ভীত সুদৃঢ় তথা মজবুত করণে, মেয়র রুকনের এমন অপচেষ্টা ব‍্যর্থ হয়। মেয়র রুকন নিজেকে প্রজাবিহীন ও মুকুটহীন রাজা বুঝতে পেরে অজ্ঞ ও অথর্বের ন‍্যয় পৌরসভা থেকে কাউন্সিলর কর্তৃক বিতারিত মেয়র রুকন জানতে পারে পৌরসভার সকল কাউন্সিলর তার বহু অনিয়ম দূর্নীতির বিষয়ে আলোকপাত সমেত লিফলেট বিলি করছে। এমতাবস্থায় মেয়র রুকনের কথিত ক‍্যাডার বাহিনীদের নিয়ে কাউন্সিলরদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় মেয়র রুকনের অতিরিক্ত উগ্রতা দেখে সাধারণ জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে মেয়র রুকনের ক‍্যাডার বাহিনীকে ধাওয়া সমেত লাঠি পেটা করেন বলে জানা যায়। এ খবর জানতে পেরে সরিষাবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে মেয়র রুকনকে নিরাপদ স্থানে রেখে আসেন। জানা যায় এই বিষয়টি মেয়র এবং কাউন্সিলরদের অভ‍্যন্তরিণ হলেও মেয়র রুকন প্রকাশ্যে তথ‍্যপ্রতিমন্ত্রীর নির্দেশনায় থাকা সরিষাবাড়ীর প্রতিনিধি মোঃ সাখাওয়াত হোসেন মুকুলকে দোষারোপ করেন এবং ফেইসবুকে স্ট‍্যাটাস দেন মুকুলের ক‍্যাডার বাহিনী কর্তৃক আমার উপর হামলা করা হয়েছে। এ বিষয়ে মোঃ সাখাওয়াত হোসেন মুকুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতির আদর্শে গড়া বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, এখানে তাঁরাই নেতৃত্বস্থানীয় যারা একেবারে তৃণমূল কর্মী থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পথে হেঁটে সর্বোচ্চ শিখরে পৌঁছে নেতৃত্ব দিচ্ছেন এবং তাঁরা কলুষমুক্ত আর মেয়র রুকন শুধুমাত্র আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারী সমেত অতিথি পাখি। স্বাধীন স্বার্বভৌমত্ব অর্জন ও রক্ষায় নিয়োজিত থাকা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের গুরুত্ব মেয়র রুকন কখনও বুঝতে পারবে কিনা এবিষয়ে আমি সর্বদাই বোধগম‍্যহীনতায় ভুগিতেছি। তিনি আরও বলেন, মেয়র রুকন ও কাউন্সিলরদের এই সাংঘর্ষিক বিষয়টি রাজনৈতিক নয়, এটা তাদের অভ‍্যন্তরিণ বিষয় এবং আমার বিষয়ে যে অপপ্রচার করা হচ্ছে, তা বিভ্রান্তিকর অযৌক্তিক বলে আমি মনে করছি।

"স্বাধীনতার মহান স্থপতির এক (০১) আদর্শের" তত্ত্বীয় গবেষণাগার কর্তৃক সত্য প্রকাশে বিশ্বস্ত একটি অনলাইন পোর্টাল 'দৈনিক তরঙ্গ বার্তা'